Header Ads

খাদ্য মজুদ করে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি ইসলামে নিষিদ্ধ - মাওলানা নিজাম সাইয়্যিদ

খাদ্য মজুদ করে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি ইসলামে নিষিদ্ধ :

ব্যবসার মাধ্যমে দেশ ও সমাজের সার্বিক কল্যাণ সাধনই ইসলামী অর্থনীতির মূল উদ্দেশ্য। ব্যবসার দ্বারা কোন সমাজ বা ব্যক্তি যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয়, এ ব্যাপারে কুরআন হাদীসে বিশেষভাবে সতর্ক করা হয়েছে । তাই ইসলামী অর্থ ব্যবস্থায় অধিক মুনাফা লাভের নিমিত্তে মজুদদারী সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ বা হারাম।

# মূল্যনীতি সম্পর্কে ইসলামী নীতি :

ইসলামী অর্থনীতিতে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে এবং অধিক মুনাফা অর্জনের লোভে খাদ্য মজুদ করা সম্পূর্ণরূপে অবৈধ। ইসলাম নীতিগত কারণেই দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ পছন্দ করে না। দেশে ইসলামী অর্থনীতির বাস্তবায়ন হলে বাজারের স্বাভাবিক নিয়ামক শক্তিগুলোই দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ করবে। এতে আজকের সমাজে পুঁজিবাদী বাজার অর্থনীতি সৃষ্ট মুদ্রামানের ব্যাপক ও ঘন ঘন ওঠানামা থাকবে না।ফলে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল হবে।

তবে এমন কোন অস্বাভাবিক কারণ যদি ঘটে এবং এজন্য যদি দ্রব্যমূল্য অস্থিতিশীল হয়,তাহলে অবস্থা বিশ্লেষণে যথার্থ পদক্ষেপ অবশ্যই নিতে হবে।কিন্তু সেখানে যথাসম্ভব চাহিদা ও যোগানের সামঞ্জস্য বিধানের দিকেই লক্ষ্য রাখতে হবে।

এভাবে ইসলামী অর্থনীতি পণ্যের মূল্য নির্ধারণের ক্ষেত্রে যেমন উৎপাদনকারী ও বিক্রেতার অধিকার খর্ব করে না,তেমনি একচেটিয়া কারবারির চক্রান্তে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির মাধ্যমে ভোক্তা ও ক্রেতাদের ভোগান্তি সৃষ্টির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতেও কসুর করে না।

# মজুদদারি সম্পর্কে ইসলামী দৃষ্টিভঙ্গি : 

সস্তায় দ্রব্যাদি ক্রয় করে ভবিষ্যতে অতি চড়া দামে বিক্রয় করার লক্ষ্যে তা নিজ নিয়ন্ত্রণে রাখার নামই মজুদদারি।মজুদদারির কারণেই দ্রব্যমূল্য ওঠানামা করে।এজন্য মজুদদারি ইসলাম সমর্থিত নয়।ইসলাম

মানবতাবিরোধী,পুঁজিবাদের বাহন মজুদদারিকে নিষিদ্ধ করে এর অন্যায় যাঁতাকল থেকে মানুষকে রক্ষা করেছে।ইসলামে কঠোরভাবে এই ঘৃণিত কাজকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ প্রসঙ্গে হাদিসে বলা হয়েছে…

# হযরত ওমর(রাঃ) বলেন,আমি রাসূলুল্লহ (সা.)কে বলতে শুনেছি, যে ব্যক্তি মুসলমানদের খাদ্যদ্রব্য মজুদ করে রাখে আল্লাহ তায়ালা তাকে কুষ্ঠরোগী কিংবা দরিদ্র করে দেন। (আবু দাউদ)।

# হযরত ওমর (রাযি.) বর্ণিত হাদিসে বলা হয়েছে, শস্য আমদানিকারক ভাগ্যবান, কিন্তু মজুদদার অভিশপ্ত। (ইবনে মাজাহ- ২১৫৩)।

# হযরত আবু হুরায়রা (রাযি.) হতে বর্ণিত হাদিসে বলা হয়েছে, যে ব্যক্তি মূল্য বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে খাদ্য মজুদ করে রাখে সে ভ্রান্ত। (মুসনাদে আহমদ- ২/৩৫১)।

# আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর (রাযি.) বর্ণিত হাদিসে বলা হয়েছে,যে ব্যক্তি অধিক মূল্যের আশায় ৪০ দিন পর্যন্ত খাদ্যদ্রব্য মজুদ করে রাখে সে আল্লাহ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এবং আল্লাহও তার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যান। (মুসনাদে আহমাদ- ২/৩৩)।

লেখক: মাওলানা নিজাম সাইয়্যিদ

শিক্ষক, আল জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলূম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী, চট্টগ্রাম।

যোগাযোগঃ Faysal's Education Counsel

কোন মন্তব্য নেই

Jason Morrow থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.